কড়ানজর
  • October 20, 2021
  • Last Update October 1, 2021 6:00 pm
  • গাজীপুর

৫২ জনের মৃত্যু: রিমান্ড থেকে ফিরেই হত্যামামলার দুই আসামির জামিন


কড়ানজর প্রতিবেদনঃ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে জুস কারখানায় আগুনে ৫২ শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতারের চার দিনের মাথায় হাসেম ফুড বেভারেজের চেয়ারম্যানের দুই ছেলে তাওসিফ ইব্রাহিম ও তানজিম ইব্রাহিম এর জামিন পাওয়া নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন, যেখানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, এটিকে হত্যাকাণ্ড বলেছেন, সেখানে চার দিনের মাথায় দুই আসামি কীভাবে জামিন পেলেন?

আগুনে ৫২ শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশের করা হত্যা মামলায় বুধবার (১৪ জুলাই) বিকালে হাসেম ফুড বেভারেজের চেয়ারম্যানের দুই ছেলে তাওসিফ ইব্রাহিম ও তানজিম ইব্রাহিমকে জামিন দেন আদালত। নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খাতুনের আদালত তাদের জামিনের আদেশ দেন।

জামিনের প্রতিক্রিয়ায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম বলেন, ‘যেখানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন এটি হত্যাকাণ্ড, সেখানে হত্যা মামলার দুই আসামি চার দিনের মাথায় জামিন পেলেন কীভাবে? আমার মাথায় ধরে না! আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করবেন আদালত। কিন্তু আইনের দৃষ্টিতে এটিকে নিরপেক্ষ মনে হচ্ছে না আমার। এত দ্রুত জামিনের সিদ্ধান্ত মানা যায় না।’

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী শ্রমিকনেতা মাহবুবুর রহমান ইসমাইল বলেন, ‘রিমান্ড থেকে ফিরেই আদালতে তোলার দিন হত্যা মামলার দুই আসামির জামিন পাওয়া দেখে আমি অবাক হয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘যেখানে নারী ও শিশুসহ ৫২ জন শ্রমিক নিহত হলেন, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী শোক জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেছেন, দোষীদের কঠোর বিচার হবে, সেখানে চার দিনের মাথায় দুই আসামির জামিন প্রচলিত আইনের প্রথার বাইরে। এটা আইনের শাসনে অন্যরকম বার্তা দিতে পারে।’

আসামিপক্ষের আইনজীবী বলেন, ‘অত্র মামলায় দুই আসামী তাওসিফ ইব্রাহিম ও তানজিম ইব্রাহিমকে জামিন দিয়েছেন আদালত। তারা কোম্পানির পরিচালক। তবে সরাসরি ব্যবসা পরিচালনায় যুক্ত নন। বিদেশে পড়াশোনা শেষে দুই ভাই দেশে এসেছেন। বিষয়টি আমরা আদালতকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি বলেই জামিন মঞ্জুর করেছেন বিচারক। বাকি ছয় আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। জামিন দেওয়ার এখতিয়ার নিম্ন আাদালতের রয়েছে। এতে প্রশ্ন তোলার কিছুই নেই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *