কড়ানজর
  • September 28, 2021
  • Last Update September 28, 2021 1:03 pm
  • গাজীপুর

রাজবাড়ীর ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগে

রাজবাড়ীর ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগে

কড়া নজর প্রতিবেদকঃ

রাজবাড়ীর পানিবন্দি হয়ে ৬৭ গ্রামের ১০ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি থাকায় পানিবাহিত নানা ধরনের রোগ দেখা দিচ্ছে। বিশুদ্ধ পানি, খাবার ও পশু খাদ্যেরও সঙ্কট তৈরি হচ্ছে। তলিয়ে গেছে সবজি ক্ষেতসহ বিভিন্ন ফসলের জমি। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম। আবার অনেক এলাকায় ত্রাণ পৌঁছায়নি। পদ্মার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় বন্যাকবলিতদের মাঝে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। 

মিজানপুর ইউনিয়নের আসমা খাতুন বলেন, “ঘরের ভেতরে পানি উঠে গেছে। ছেলেমেয়ে খাবারের জন্য কান্নাকাটি করছে। চুলা এখন পানির নিচে। রান্না করতে পারছি না। সেই সঙ্গে সাপের ভয়ও রয়েছে।” 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বন্যদুর্গত এসব এলাকায় মানুষ অনাহারে-অর্ধাহারে দিন পার করছেন। তাদের বেশির ভাগেরই ঘরে নেই খাবার, রান্নার জন্য নেই পর্যাপ্ত শুকনো কাঠ, গবাদি পশুর খাবার শেষ হয়ে দুর্ভোগ যেন আরও বেড়েছে। এছাড়া পানিতে বাড়ি-ঘর তলিয়েও যাওয়ায় অনেকেই নৌকায় বাস করছেন, কেউ কেউ আশ্রয় নিয়েছেন বাঁধে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান বলেন, “রাজবাড়ির তিনটি পয়েন্টেই পদ্মার পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে। গত ২৪ ঘণ্টায় গোয়ালন্দ পয়েন্টে পানি ৫ সেন্টিমিটার বেড়ে ৮২ সেন্টিমিটার হয়েছে। এ ছাড়া পাংশার সেনগ্রাম পয়েন্টে বিপৎসীমার ৭৭ সেন্টিমিটার, সদরের মহেন্দ্রপুর পয়েন্টে বিপৎসীমার ৩১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি বইছে। আগামী আরও দুই দিন পদ্মার পানি বাড়বে। এতে করে আরও কিছু এলাকায় পানি প্রবেশ করতে পারে।”

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা সৈয়দ আরিফুল হক জানান, এখন পর্যন্ত জেলায় ১০,১৩৭টি পানিবন্দি পরিবারের তালিকা পাওয়া গেছে। তাদের সহায়তা করতে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চলছে। দুর্গতদের জন্য এখন পর্যন্ত ২৪৮ মেট্রিকটন চাল ও নগদ সাড়ে ১৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া পর্যাপ্ত ত্রাণ ও নগদ অর্থ মজুদ আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *