কড়ানজর
  • September 28, 2021
  • Last Update September 28, 2021 1:03 pm
  • গাজীপুর

দেশের বিভিন্ন জেলায় একই ব্যক্তিকে দুইবার টিকা

দেশের বিভিন্ন জেলায় একই ব্যক্তিকে দুইবার টিকা

কড়ানজর প্রতিবেদকঃ

খুলনায় ১০ মিনিটের ব্যবধানে এক নারীকে দুইবার টিকা প্রদান

খুলনায় জহুরা বেগম নামে ৭২ বছর বয়সী এক বৃদ্ধা অভিযোগ করেছেন তাকে ১০ মিনিটের ব্যবধানে দুইবার করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে। এর ফলে তার মাথা ঘুরাচ্ছে, গা ঝিমঝিম করছে এবং চোখ দিয়ে পানি ঝরছে।

জহুরা বেগম জানান, শনিবার (৭আগস্ট) সকাল দশটায় তিনি টিকাকেন্দ্রে যান। সেখানে যাওয়ার পরে একটি চেয়ারে তাকে বসিয়ে তার নাম ঠিকানা লিখে কার্ড প্রস্তুত করে টিকা দেওয়া হয়। এসময় টিকা দেওয়ার সূঁচ ভেঙে গেলে টিকাকর্মী তাকে অন্য একটি চেয়ারে বসান। এরপর আরেকজন টিকাকর্মী নতুন আরেকটি সূঁচ নিয়ে তাকে আবারও টিকা দেন। বিষয়টি তখন বুঝতে পারেননি ওই বৃদ্ধা। টিকা নেওয়ার পর বাসায় চলে যান। বাসায় যাওয়ার পর তার মাথা ঘুরতে শুরু করে ও গা ঝিমঝিম করে। সময় বাড়ার সাথে সাথে তা বাড়তে থাকে এবং চোখ দিয়ে পানি পড়তে থাকে। এ অবস্থায় তিনি হতাশ হয়ে পড়েন। ঘরে একাকী নিরিবিলি অবস্থান নেন।

ঘটনাটি ঘটেছে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ১৭ নং ওয়ার্ডে।

সোনাডাঙ্গার ময়লাপোতা টিকাকেন্দ্রে টিকাদান কর্মী শাহিনুর বেগম বলেন, “এই কেন্দ্রে কাউকে দুইবার টিকা দেওয়ার ঘটনা ঘটেনি। আমি নিজেই এ টিকা দিয়েছি। কাউকে টিকা দিতে গিয়ে সূঁচ ভেঙে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেনি।

খুলনার সিভিল সার্জন ডাক্তার নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, “এ ধরনের কোনো তথ্য তিনি জানেন না। আর বিষয়টি সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে। তাই বিষয়টি সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগই বলতে পারবে।”

রাজবাড়ীতে নারীকে একই সময়ে দুইবার টিকা প্রদান

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের পাটকিয়া বাড়ি দাখিল মাদ্রসা কেন্দ্রে ইসমত আরা (৩১) নামে এক নারীকে এক সঙ্গে দুই ডোজ টিকা প্রদানের ঘটনা ঘটেছে। 

শনিবার (৭ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। টিকা গ্রহীতার স্বামী নাহিদুল হক স্বপন অভিযোগ করে বলেন, পাটকিয়া বাড়ি দাখিল মাদ্রসা টিকাদান কেন্দ্রে কোন শৃঙ্খলা নাই। এক সঙ্গে অনেককে বসিয়ে টিকা দেয়া হচ্ছে। সকালে তার স্ত্রী টিকা নিতে গেলে স্বাস্থ্যকর্মী তার বাম হাতে টিকা দেয়। টিকা প্রদান শেষে তার স্ত্রী টিকা দেবার স্থান অন্য হাত দিয়ে চাপ দিয়ে ধরে রাখে। সে সময় আরেক স্বাস্থ্যকর্মী এসে ডান হাতে টিকা প্রদান করে। এখন তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে চিন্তায় আছেন। 

বালিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. শাফিন জব্বার বলেন, ভুলবসত এক মহিলাকে দুইটি টিকা প্রদানের ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছেন। ঘটনার পর থেকে ওই মহিলার স্বাস্থ্যগত খোজ খবর রাখছেন। এখন পর্যন্ত সে ভাল আছেন। একটির স্থানে দুইটি দিলে খুব অসুবিধা হবার কথা না। তারপরও নজরদারি আছে। ভির বেশি হওয়াতে এটা হয়েছে। সমস্যা হলে টিকা প্রদানের এক ঘন্টার মধ্যে হয়। এখন পর্যন্ত এক ঘন্টার বেশি সময় অতিবাহিত হয়েছে। আশা করছেন কোন সমস্যা হবে না।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩০ মিনিটের ব্যবধানে নারীকে ২বার টিকাঃ

গণটিকা কার্যক্রম চলাকালে শনিবার (৭ আগস্ট) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সরাইল উপজেলা সদরের সরাইল অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে রোজিনা বেগম (৪০) নামে এক নারী আধা ঘণ্টার ব্যবধানে পরপর দুই ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন। এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর এনিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

তবে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পরবর্তী সময়ে এ ব্যাপারে স্বাস্থ্যকর্মীদের আরও সর্তক হওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শনিবার (৭ আগস্ট) সকাল ৯টা থেকে একযোগে জেলার ১১০টি টিকা কেন্দ্রে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর থেকে জেলায় শান্তিপূর্ণভাবে টিকাদানের কার্যক্রম চলছে। এর মধ্যে দুপুরে সরাইল অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে সৈয়দটুলা গ্রামের মো. মুসলিম খানের স্ত্রী রোজিনা বেগম প্রথমে এক ডোজ টিকা নেন। এরপর টিকাকার্ডের জন্য রোজিনা কেন্দ্রেই অপেক্ষা করতে থাকেন।

প্রায় আধা ঘণ্টা পর টিকাদানকর্মী আফরিন সুলতানা এসে টিকা নিয়েছেন কিনা জিজ্ঞাসা করার পর রোজিনা জানায়, তিনি টিকা নেননি। পরক্ষণে আরও এক ডোজ টিকা তাকে দেওয়া হয়। তবে দুই ডোজ টিকা নেওয়ার পর এখন পর্যন্ত রোজিনার শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। কোনো সমস্যা হয়নি।

এ ব্যাপারে রোজিনা বেগমের স্বামী মুসলিম খান জানান, দুপুরে সরাইল অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে টিকা নিতে আসেন রোজিনা। দুই ডোজ টিকা নেওয়ায় তিনি কিছুটা দুশ্চিন্তায় আছেন। তবে তার স্ত্রী সুস্থ আছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোমান মিয়া বলেন, ঘটনাটি জানার পর তাৎক্ষণিকভাবে আমি ওই নারীর কাছে যাই। তার কাছে জানার চেষ্টা করি তিনি কেন এমনটি করলেন। ওই নারী কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। তার বাড়ি সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাশেই। দুই ডোজ টিকা নিলেও তার কোনো সমস্যা হবে না বলে জানান তিনি। 

কুষ্টিয়ায় ২ মিনিটে ২ বার করোনার টিকা নিলেন একই ব্যক্তি:

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একই ব্যক্তিকে ২ মিনিটে দুইবার করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা অতিবাহিত হয়ে গেলেও রোগীর খোঁজ নেয়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) দুপুরে টিকা গ্রহণকারী বুজরুক মির্জাপুর গ্রামের বাশারুজ্জামান (৩৮) এ কথা জানান। বৃহস্পতিবার দুপুরে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে একই সময়ে দুইবার টিকা দেয়া হয়।

টিকা গ্রহণকারী বাশারুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার (২৯ ‍জুলাই) তিনি করোনার টিকা নিতে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে টিকার কার্ডের একটি অংশ ছিঁড়ে রুমের মধ্যে পাঠানো হলে সেখানে কর্তব্যরত সেবিকা শারমিন আক্তার তাকে করোনার টিকা পুশ করেন এবং ২ মিনিটের মাথায় আবারও টিকা পুশ করতে গেলে বাশারুজ্জামান বলেন টিকা কয়টা নিতে হয় তখন সেবিকা বলেন ১টা- এ কথা বলতে বলতেই ২য় টিকা দিয়ে দেন।

ওই সময় বাশারুজ্জামান বলেন, রুমে আমি একা, অন্য কোনো রোগী নাই। অথচ আপনি একই সময়ে ২ বার টিকা দিলেন আমার কোনো সমস্যা হবে কিনা? তখন সেবিকা বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না, আমি ভেবেছি আপনি চলে গেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *