কড়ানজর
  • September 20, 2021
  • Last Update September 20, 2021 2:51 am
  • গাজীপুর

তালেবানি জোশ না-কি ফায়দা লুটার চেষ্টা ! টাঙ্গাইল ও জয়পুরহাটের বিচারককে জঙ্গি হুমকি

তালেবানি জোশ না-কি ফায়দা লুটার চেষ্টা !                       টাঙ্গাইল ও জয়পুরহাটের বিচারককে জঙ্গি হুমকি

কড়া নজর প্রতিবেদক ঃ
টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন ও জয়পুরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলীকে চিঠি দিয়ে বোমা মেরে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। দুইটি চিঠিই ডাকযোগে বৃহস্পতিবার সংশ্লিষ্ট বিচারকদের কাছে এসেছে। চিঠি প্রেরণকারীরা নিজেদের জঙ্গি সংগঠনের সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়েছে। এ নিয়ে বিচারকদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন উল্লেখিত দুই বিচারকসহ অন্যরাও। তবে দুই জেলায় বিচারককে হুমকি আসলে ব্যক্তিবিশেষের ফায়দা লুটার চেষ্টা না-কি তালিবানি জোশ এ নিয়ে অনেকেই সন্দেহ প্রকাশ করছেন। তবে আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী বিষয়টি হালকাভাবে নিচ্ছেন না।


টাঙ্গাইলের ঘটনা ঃ
আদালত সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) একটি খামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিনের কাছে একটি চিঠি আসে। সেখানে প্রেরকের স্থানে জুবায়ের রহমান লেখা রয়েছে। বিচারক খালেদা ইয়াসমিন জানান, ‘চিঠিটি পাওয়ার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।’
ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, “আমি জঙ্গি সংগঠনের লোক। তাই জীবনে চলার পথে অনেক অন্যায় কাজ করেছি, এমনকি এখনোও করছি। আমরা যখন যাকে টার্গেট করি তখন তাকে ছলে বলে কৌশলে হত্যা করি। এটাই আমাদের পেশা। এবার আপনাকে হত্যা করার পালা। কারণ আপনি নারী ও শিশু কোর্টে আসার পর থেকে এখন পর্যন্ত অনেক বড় ধরনের মামলার রায় দিয়েছেন। তাতে আমাদের লোকজনের বড় ধরনের ক্ষতি হয়েছে। তাই আল্লাহ দোহাই দিয়ে বলছি যদি নিজের জীবনের প্রতি মায়া থাকে তাহলে টাঙ্গাইল থেকে বদলি হয়ে চলে যান। যদি কথা না শুনেন আপনাকে হত্যা করতে বাধ্য হবো। আর আমাদেরকে যারা সহযোগিতা করছেন তারা কয়েকজন আইনজীবী, এমনকি জজ কোর্ট ও ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট এর স্টাফদের সমন্বয়ে।
ওই বিচারককে হত্যার দুটি নমুনা দেওয়া হয়েছে, ‘অফিস থেকে বাসা আসা যাওয়ার পথে আপনার গাড়িতে বোমা নিক্ষেপ করা হবে। অফিস চলাকালীন লোকজনের ভিড়ের মধ্যে গিয়ে আপনার এজলাসে বা খাসকামরা এর মধ্যে বোমা নিক্ষেপ করা হবে।’
চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘পুলিশ আপনাকে যতই নিরাপত্তার মধ্যে রাখুক না কেনো আপনাকে আমাদের বোমার হাত থেকে রক্ষা করতে পারবে না। তাই প্রাণ বাঁচাতে চাইলে টাঙ্গাইল থেকে তাড়াতাড়ি বদলি হয়ে চলে যান।’
র‌্যাব-১২ সিপিসি ৩ এর কোম্পানি কমান্ডার কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, র‌্যাবের সকল টিম বিষয়টি নিয়ে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে।


জয়পুরহাটের বিচারককে তালেবানের চিঠি
জয়পুরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলীকে ‘তালেবান’ পরিচয়ে হুমকির চিঠি পাঠানো হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (২৭ আগস্ট) সকালে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) নৃপেন্দ্রনাথ মÐল গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, গতকাল বিকেলে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলীর কাছে ডাকযোগে হুমকির চিঠি আসে। কালই তিনি বিষয়টি জেলা পুলিশ সুপারকে অবহিত করেছেন।
প্রেরকের নাম লেখা রয়েছে মো. আশরাফ আলী। ঠিকানা জয়পুরহাটের সদর উপজেলার ভাদসা দূর্গাদহ। চিঠিতে প্রেরক নিজেকে তালেবান গোষ্ঠীর বীর যোদ্ধা পরিচয় দিয়েছেন।
এতে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের মতো শিগগির বাংলাদেশ দখল হবে। তালেবানের অধীনে বিচার-আচার হবে কোরআন-সুন্নাহ অনুযায়ী। কোর্টে যাওয়ার সময় বিচারক-আইনজীবী-মহুরি সবার মাথায় তালেবান পাগড়ি পরতে হবে। না পরলে আদালতে যেতে দেওয়া হবে না। হামলার শিকার হতে হবে। ভারত-বাংলাদেশ হবে তালেবান রাষ্ট্র। বাংলাদেশের নাম হবে পূর্বপাশা ও ভারতের নাম হবে সুলতান শাহ। বাংলাদেশের বহু জায়গা ভারতের দখলে আছে। তালেবানরা সেগুলো ফিরিয়ে নেবে। প্রথমেই জয়পুরহাটের থানাগুলোতে হামলা চালানো হবে।

#

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *