কড়ানজর
  • October 16, 2021
  • Last Update October 1, 2021 6:00 pm
  • গাজীপুর

গাজীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, তিন লক্ষ টাকা জরিমানা ও মেয়াদোত্তীর্ণ এক লক্ষ টাকার ঔষধ ধ্বংস

গাজীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, তিন লক্ষ টাকা জরিমানা  ও মেয়াদোত্তীর্ণ এক লক্ষ টাকার ঔষধ ধ্বংস

কড়া নজর প্রতিবেদকঃ

গাজীপুর মহানগরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজের উত্তর পাশে গ্রীণ ডে ফার্মেসীতে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে এক লক্ষ টাকার মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ ধ্বংস, ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ফার্মেসীর ম্যানেজার খলিলুর রহমানকে আটক করে জেলে প্রেরণ করা হয়।

রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তামান্না রহমান জুতি এর ‍নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে রফিকুল ইসলাম নামক এক ব্যবসায়ী। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রফিকুল ইসলামের ছেলে রাতুল গ্রীণ ডে ফার্মেসীতে ঔষধ ক্রয় করার জন্য গেলে কিলব্যাক ১.৫ গ্রাম নামক ভেজাল ঔষধ ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রয় করে। সেই ঔষধ খেয়ে রফিকুল ইসলামের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কড়া নজর প্রতিবেদককে জানায়, উক্ত ঘটনা প্রশাসন জানতে পেরে রোববার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে গ্রীণ ডে ফার্মেসীতে বিপুল পরিমাণ ভেজাল ঔষধ ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ পাওয়া যায়। পরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫১,৫২ ও ৫৩ ধারা ও ড্রাগ আইন ১৯৪০ এর ২৭ ধারা মোতাবেক ভ্রাম্যমান আদালত গ্রীণ ডে ফার্মেসীতে থাকা ম্যানেজার খলিলুর রহমানকে তিন মাসের জেল, তিন লক্ষ টাকা অর্ধদন্ড অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও এক লক্ষ টাকার ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ ধ্বংস করা হয় এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত গ্রীণ ডে ফার্মেসী বন্ধ করে দেওয়া হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করার সময় গ্রীন ডে ফার্মেসীর মালিক, কর্মচারী কৌশলে পালিয়ে যায়।

এসময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন অফিসের ডাক্তার এম.এম আহসান উল্লাহ, ঔষধ প্রশাসন গাজীপুরের সহকারী পরিচালক আহসান হাবিব এবং প্রশাসনের আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *