কড়ানজর
  • September 19, 2021
  • Last Update September 19, 2021 9:03 pm
  • গাজীপুর

গাজীপুরে খালে নেমে নিখোঁজ হওয়া শিশুর লাশ ‍উদ্ধার

গাজীপুরে খালে নেমে নিখোঁজ হওয়া শিশুর লাশ ‍উদ্ধার

কড়া নজর প্রতিবেদকঃ

গাজীপুর সদরের পাইনশাইল এলাকার লবন্দহ খালে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে নিখোঁজ শিশুশিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সে নিখোঁজ হয়। এ সময় তার সঙ্গে আরও তিন কিশোরী গোসলে নেমে মৃত্যুবরণ করে। তাদের লাশ সোমবারই উদ্ধার হয়েছিল।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল পৌনে চারটার দিকে নিখোঁজ শিশুটির লাশ খাল থেকে উদ্ধার করে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। নিহত শিশু রিয়া আক্তার (১০) পাইনশাইল গ্রামের সোলাইমান হোসেনের মেয়ে। এই  ঘটনায় সোলাইমানের  বড় মেয়ে রিচি আক্তারের (১৫) লাশ সোমবার ঘটনার পরপরই উদ্ধার করা হয়। উক্ত ঘটনায় নিহত অপর দুই কিশোরী হলো একই গ্রামের মনজুর হোসেনের মেয়ে মায়া আক্তার (১৪) এবং হায়েত আলীর মেয়ে আইরিন আক্তার (১৪)।

উক্ত ঘটনায় ৪জন মারা যাওয়ায় এলাকায় শোকের ছায়া পড়েছে। সোলাইমানের দুই মেয়ে মারা গেছে সে কথা মেনে নিতে পারছেন না সোলাইমান ও তার স্ত্রী। একটু পরপরই জ্ঞান হারিয়ে ফেলছেন তারা। একটু চোখ মিললেও আবার তারা জ্ঞান হারিয়ে পড়ছেন। এমন শোকার্ত দেখে এলাকাবাসীরাও চোখের পানি ধরে রাখতে পারছেনা। শোকার্ত পরিবারকে দিতে পারছেনা শান্তনা। কারণ তারা নিজেই শোকাহত। হয়ে যাচ্ছে  বাড়ীতে শোকের ছায়া নেমে পড়েছে। মঞ্জুর ও হায়েত এর বাড়ীতেও শোকের ছায়া পড়েছে। কেউ যেন এই ঘটনাকে মেনে নিতে পারছে না।

এদিকে, নিহত চারজনের সঙ্গে গোসল করতে গিয়েছিল সাবিনা আক্তার। তবে বেঁচে গেছে। সে বাড়ির উঠানে বসা। মুখে কোনো কথা নেই। চোখের সামনেই স্রোতে হারিয়ে যেতে দেখেছে খেলার চার সাথিকে। সারা দিন ওরা পাঁচ-ছয়জন একসঙ্গে খেলা করত। সাবিনা বলে, ‘ওরা যখন ডুবে গেল, আমি তাদের হাত ধরার অনেক চেষ্টা করেছি। কিন্তু চোখের পলকেই কোথায় যেন হারিয়ে গেল। আর ধরতে পারলাম না।’

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গাজীপুর সদর উপজেলার লবন্দহ খালে বন্যার পানিতে এখন অথই পানি। প্রতিদিনই সেখানে আশপাশের শিশু-কিশোরেরা গোসল করতে নামে। গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রিচি, রিয়া, আইরিন, মায়াসহ পাঁচ–ছয়জন শিশু-কিশোরী গোসল করতে নামে। এ সময়ে তারা হঠাৎ খালের স্রোতে পড়ে যায়। এ সময়ে খালের পাড়ে থাকা অন্যরা তাদের দেখতে না পেয়ে ডাক-চিৎকার শুরু করে। এ সময় দুজন পাড়ে উঠেতে পারলেও ওই চারজন পানিতে ডুবে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *